UTIDP


উপজেলা শহর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প (UTIDP)

বিগত চার দশক ধরে বাংলাদেশে দ্রুত বর্ধনশীল নগরায়ণ পরিলক্ষিত হচ্ছে, যেখানে ১৯৭০ থেকে ২০১১ সালের মধ্যে নগর এলাকা শতকরা ৭.৬ ভাগ থেকে ২৯ ভাগে উন্নীত হয়েছে। আর্থ-সামাজিক, রাজনৈতিক, জনসংখ্যাতাত্ত্বিক এবং জলবায়ু সংক্রান্ত কারণসমূহ এর জন্য সমন্বিতভাবে দায়ী। এই দ্রুত বর্ধনশীল এবং অনিয়ন্ত্রিত নগরায়ণ বড় শহরের সাথে সাথে ছোট ছোট শহরের সীমিত ভূসম্পদ ও পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলছে, একইসাথে এদের সেবা প্রদানের সক্ষমতাও হ্রাস করছে। যদিও নগরায়ণ হল উন্নয়ন প্রক্রিয়ার একটি সম্ভাবনা, যা এর একটি অবিচ্ছেদ্য অংশও বটে। টেকসই নগর ও গ্রামীণ উন্নয়ন নিশ্চিত করতে যথোপযুক্ত আইনানুগ ব্যবস্থাসহ উন্নয়নমূলক নীতিমালা প্রণয়ন এবং কার্যকর প্রশাসনিক কাঠামো স্থাপন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
অবকাঠামো ও অন্যান্য সেবা প্রদানের জন্য উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়নে পদক্ষেপ গ্রহণ এবং জনসাধারণের জন্য টেকসই ও সমন্বিত উনড়বয়ন সুবিধা নিশ্চিত করা পৌরসভার একটি আইনগত বাধ্যবাধকতা। এই বিবেচনায়, সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)-এর কারিগরী সহায়তায় পৌরসভার জন্য একটি মহাপরিকল্পনা (ভৌত উন্নয়ন পরিকল্পনা) প্রণয়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর “উপজেলা শহর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প (UTIDP)” নামক একটি প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা মহাপরিকল্পনা নামে একটি দীর্ঘমেয়াদী ভৌত উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়নে সকল প্রকার কারিগরী সহায়তা প্রদান করে।
স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯-এ বর্ণিত দায়িত্ব পালনের অংশ হিসাবে সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। এলজিইডি এই মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে ডাটা এক্সপার্টস প্রাইভেট লিমিটেড (ডাটেক্স)- কে দায়িত্ব প্রদান করে এবং একজন প্রকল্প পরিচালক, সহকারী প্রকল্প পরিচালক, স্বতন্ত্র পরামর্শক হিসেবে কয়েকজন অভিজ্ঞ নগর পরিকল্পনাবিদ এবং সহায়ক কর্মচারীদের সমন্বয়ে একটি প্রকল্প ব্যবস্থাপনা কার্যালয় (পিএমও) স্থাপন করে। পিএমও’র নিয়মিত পর্যালোচনা, মূল্যায়ন ও মতামত এই কাজের গুণগত মান নিশ্চিত করে এবং এর গতিশীলতা বৃদ্ধি করে। মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের বিভিন্ন পর্যায়ে পিএমও, পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ও পৌরসভার সম্মিলিত প্রয়াসে বিভিন্ন সময়ে বিভিনড়ব পদ্ধতিতে যেমন; মতবিনিময় সভা, গণশুনানি প্রভৃতি আয়োজনের মাধ্যমে জনগণের মতামত, পর্যবেক্ষণ ও চাহিদা গ্রহণ করা হয়েছে। মহাপরিকল্পনাটি চূড়ান্তকরণের লক্ষ্যে পৌরএলাকার সকল শ্রেণীর নাগরিকদের অংশগ্রহণে বিগত ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ইং বৃহস্পতিবার সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা কার্যালয়ে চূড়ান্ত মত বিনিময় সভা সম্পন্ন হয়েছে। সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা শহর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প (এলজিইডি) এর আরবান প্ল্যানার জনাব পুলিন চন্দ্র গোলদার। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দ, বিভিন্ন সরকারী- বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দসহ পৌরসভার বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানে কন্সাল্টিং ফার্মের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন, আরবান প্ল্যানার হিমেল বড়–য়া রনি, আরবান প্ল্যানার শুভাশিস গোস্বামী এবং জি.আই.এস এক্সপার্ট সজল চন্দ্র দেবনাথ। মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের শেষ পর্যায়ে এর অনুমোদনের জন্য স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯-এর সংশ্লিষ্ট ধারা ও উপধারা সমূহ অনুসারে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় সকল কার্যাদি স¤পনড়ব করেছে। প্রণীত মহাপরিকল্পনার চূড়ান্ত অনুমোদন এবং এর গেজেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের জন্য পৌরসভা কর্তৃপক্ষ এই পরিকল্পনাটি স্থানীয় সরকার, পল্লী উনড়বয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগে উপস্থাপন করেছে।
এই মহাপরিকল্পনাটি উচ্চμমিক স্তরে বিভক্ত তিনটি পরিকল্পনার সমন্বয় যেগুলো হল: ২০ বছর মেয়াদী কাঠামো পরিকল্পনা, ১০ বছর মেয়াদী শহর এলাকা পরিকল্পনা এবং ৫ বছর মেয়াদী ওয়ার্ড কর্ম পরিকল্পনা। শহর এলাকা পরিকল্পনা আবার তিনটি পরিকল্পনার সমন্বয় যথাঃ ভূমি ব্যবহার পরিকল্পনা, পরিবহন ও যাতায়াত ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা এবং নিষ্কাশন ও পরিবেশ ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা। এই মহাপরিকল্পনাটি সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার ভবিষ্যৎ ভূমি ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ, পর্যাপ্ত সেবা সুবিধার কার্যকর ব্যবস্থাপনাসহ অবকাঠামোগত উন্নয়নের নির্দেশক হিসাবে কাজ করবে।
এই মহাপরিকল্পনা সফলভাবে বাস্তবায়নের মাধ্যমে সুন্দরগঞ্জ পৌরসভাকে একটি উন্নয়ন ও বাসযোগ্য শহরে পরিণত করতে সকল জাতীয় ও স্থানীয় প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি সংস্থা এবং স্থানীয় জনগণের সার্বিক সহযোগিতা ও অংশগ্রহণ আবশ্যক। মহাপরিকল্পনাটির সার্থক বাস্তবায়নের দ্বারা সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা সবুজ ও টেকসই শহর হিসাবে বিকশিত করে বাংলাদেশের একটি আদর্শ শহর হিসাবে পরিগণিত হওয়া সম্ভব হবে। মহাপরিকল্পনাটি ইতিমধ্যেই সমাপ্ত হয়েছে। পৌরসভা অফিসে এসে মহাপরিকল্পনাটি দেখা যাবে।

Copyright © 2018 Sundarganj Pourasava. All rights reserved.